অফবিট

যে প্রাণীটি বাড়িতে প্রবেশ করলেই মৃত্যুর লক্ষণ হিসেবে ধরা হয়

আমরা পরিবারের সুরক্ষার কথা ভেবে কতই না কিছু করে থাকি। বিশেষ করে পোকামাকড় ও কীটপতঙ্গ থেকে রক্ষা পেতে বাড়ির পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতার উপর বিশেষভাবে যত্ন নিই। অনেক পোকামাকড়ের কারণে মানুষ অনেক রোগের শিকার হতে পারেন। তবে কখনো কখনো বাড়িতে এমন কিছু গাছ থাকে তাতে এমন কিছু প্রাণী বা পোকামাকড় পাওয়া যায় যেগুলি কেবল সংক্রমণ ছড়ায় না বরং মানুষের মৃত্যুর কারণ হতে পারে।

Image

এই প্রতিবেদনে বাদুড়ের কথা বলা হয়েছে। আপনি নিশ্চয়ই শুনে থাকবেন বাদুরকে অশুভ প্রাণী হিসেবে ধরা হয়। কথিত আছে যদি কোন বাড়িতে বাদুর ঢুকে যায় এটি বাড়ির সদস্যের মৃত্যুর লক্ষণ হতে পারে। যে কারণে মৃত প্রাণীর রক্তচোষা এই প্রাণীকে অশুভ বলে মনে করা হয়।

ভারতের অধিকাংশ জায়গায় এটিকে অশুভ বলে মানা হয়। আবার কিছু কিছু জায়গায় এটাকে মানুষ খুবই শুভ বলে মনে করেন কারণ তারা এটাকে দেবী লক্ষ্মীর বাহন হিসেবেও গণ্য করে। প্রতিবেশী দেশ চিনেও বাদুরকে শুভ বলে মনে করা হয়। কারণ তারা বাড়িতে বাদুড়ের পাঁচটি চিহ্ন রাখে।

Image

তবে এখানে প্রশ্ন আসতে পারে তাহলে বাদুরকে কেন অশুভ বলে মনে করা হয়? বাড়িতে এই প্রাণীর প্রবেশকে কেন মৃত্যুর লক্ষণ হিসেবে ভাবা হয়? আমরা যদি বৈজ্ঞানিক ভিত্তিতে ব্যাখ্যা করি তাহলে এই প্রাণীর পালকে এক ধরনের মারাত্মক ব্যাকটেরিয়া পাওয়া যায় যা মানুষের শরীরে প্রবেশ করলে এটি মৃত্যুর কারণ হতে পারে।

এমন বহু ঘটনা ঘটেছে যেখানে বাদুরের আক্রমণে মানুষ মারা গিয়েছে। এই রকম পরিস্থিতিতে মানুষের অবশ্যই বোঝা উচিত যে যদি এই প্রাণীটি কখনো আক্রমণ করে তাহলে তাকে কুসংস্কারের জ্বালে না জড়িয়ে বরং সেই ব্যক্তিকে দ্রুত চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যান।