স্বাস্থ্য

লেবুর খোসায় যে চমকপ্রদ উপকারিতা রয়েছে জানলে অবাক হবেন

আমরা লেবু সাধারণত রস এর জন্যই ব্যবহার করি, তাই রস টিপে বের করে নেওয়ার পর লেবু ছুড়ে ফেলে দি। কিন্তু আপনি কি জানেন লেবুর মধ্যে যে উপকারিতা রয়েছে তার থেকেও বেশি উপকার রয়েছে লেবুর খোসায়। আজকের প্রতিবেদনে চলুন জেনে নেওয়া যাক লেবুর খোসায় কি কি উপকারিতা রয়েছে:-

১) রোগ প্রতিরোধক ক্ষমতা বাড়িয়ে তোলে:
একাধিক গবেষণায় প্রমাণিত হয়েছে যে লেবুর খোসার মধ্যে উপস্থিত ডায়েটারি ফাইবার এবং ভিটামিন সি শরীরে প্রবেশ করার পর তা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে বহুগুণে বাড়িয়ে তোলে। এর ফলে বিভিন্ন সংক্রমনের সময় যে ছোটখাট রোগগুলি দেখা দেয় তা শরীরের আশেপাশে ঘেঁষতে পারেনা।

২) ত্বকের সৌন্দর্য বাড়িয়ে তোলে:
বিভিন্ন গবেষণায় উঠে আসা তথ্য অনুযায়ী লেবুর খোসায় রয়েছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যা ত্বকের নিচে জমে থাকা সমস্ত টক্সিক উপাদানগুলিকে বের করে দেয়। এরফলে ত্বকের বয়স খুব একটা বাড়তে পারে না এবং তারুণ্য ধরে রাখে। শুধু তাই নয় বলিরেখা, ত্বকের খসখসে ভাবও দূর হয়। তাই ৩০ বছর পেরোলেই চিকিৎসকরা লেবুর খোসা খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন।

৩) হজম প্রক্রিয়াকে উন্নত করে:
আমরা আগেই জেনেছি যে কোন ফাইবার সমৃদ্ধ খাবার হজম ক্ষমতার উন্নতিতে বিশেষভাবে সাহায্য করে। এই বিশেষ উপাদানটি লেবুর খোসার মধ্যেও রয়েছে। তাই যে সকল মানুষ বদহজম থেকে শুরু করে গ্যাস অম্বল এবং নানান ধরনের পেটের অসুখে ভুগছেন তাদের ক্ষেত্রে এই প্রাকৃতিক উপাদানটি দারুণ উপকারী।

৪) লিভারের রোগ সারায়:
বেশ কয়েকটি গবেষণায় দেখা গিয়েছে যে নিয়মিত লেবুর খোসা খাওয়ার শুরু করলে শরীরে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এর পরিমাণ এতটাই বেড়ে যায় যে লিভার এর মধ্যে জমে থাকা ক্ষতিকর টক্সিক উপাদানগুলি বেরিয়ে যেতে থাকে। এর ফলে শরীরের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ লিভারের কার্যক্ষমতা বৃদ্ধি পায়।

৫) হাড় মজবুত হয়:
লেবুর খোসার মধ্যে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি এবং ক্যালসিয়াম যার ফলে এটি হাড়ের উন্নতিতে বিশেষভাবে সাহায্য করে। এছাড়াও ইনফ্লেমেটরি, পলিআর্থ্রাইটিস, অস্টিওপোরোসিস এবং আরো হাড়জনিত বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কাও কমে যায়।

error: Content is protected !!