এই জায়গার লোকেরা কখনো টিভি বন্ধ করে না, এর কারণটা আপনাকে অবাক করবে

যে কারণে এখানকার লোক সারাক্ষণ টিভি চালিয়ে রাখে

বিশ্বের সব দেশের নাগরিকদের সংস্কৃতি ও জীবনধারা আলাদা। আমাদের দেশ ভারতও বৈচিত্র্যের দেশ। অন্যদিকে, কিছু দেশে আজও মানুষ অতি প্রাচীন ঐতিহ্য অনুযায়ী জীবনধারা পালন করছে। কিন্তু এখানকার মানুষের জীবনযাত্রায় ভয় ঢুকে গেছে ও তাদেরকে সবসময় সর্তককে থাকতে হয়।

প্রায়ই মানুষ ঘুমানোর সময় লাইট, মিউজিক ইত্যাদি বন্ধ করে দেয়। কিন্তু আপনি কি জানেন এমন একটা জায়গা আছে যেখানে মানুষ রাতে লাইট ও টিভি চালিয়ে রাখে। শুধু তাই নয়, এখানকার মানুষ সবসময় আতঙ্কে থাকে এবং রাতেও শান্তিতে ঘুমাতে পারে না।

Image

আসলে দক্ষিণ কোরিয়ায় ইয়ংপিয়ং (Yongpyong) নামে একটি ছোট দ্বীপ রয়েছে। ডেইলি স্টারের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দক্ষিণ কোরিয়ার এই ছোট্ট দ্বীপ ইয়ংপিয়ংয়ের মানুষের জীবনে শান্তি ও সুখ নেই। জরুরী পরিস্থিতির জন্য সেখানকার মানুষকে সবসময় সতর্ক থাকতে হয়।

এই দ্বীপটি দক্ষিণ কোরিয়ার শত্রু দেশ উত্তর কোরিয়া থেকে মাত্র ৩ কিলোমিটার দূরে। উল্লেখ্য, চলতি বছরের শুরুতে উত্তর কোরিয়া এখানে গুলি চালায়। এমন পরিস্থিতিতে মানুষ প্রতিনিয়ত সতর্ক থাকে। শুধু তাই নয়, কামানের হামলা থেকে বাঁচতে সেখানকার লোকজন বোমা শেল্টারে আশ্রয় নিয়েছিল।

Image

জানিয়ে রাখি যে ২০১০ সালেও এই হামলায় কিছুজন মারা গিয়েছিল। এমন পরিস্থিতিতে এখানে অনেক বোমা শেল্টার তৈরি করা হয়েছে। এখানে নির্মিত বাঙ্কারগুলোতে এক সপ্তাহের খাবার, চিকিৎসা সুবিধা, বিছানা, শাওয়ার, এবং গ্যাস মাস্কসহ বড় পর্দার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

এখানে বসবাসকারী মানুষদের আশঙ্কা, একদিন উত্তর কোরিয়া তাদের ওপর হামলা চালাতে পারে। এ কারণেই এখানকার মানুষ রাতে লাইট ও টিভি জ্বালিয়ে ঘুমান। যাতে তারা সজাগ থাকতে পারে এবং খুব গভীর ঘুম না হয়। কিছু পরিবার টিভি চালু না করলেও সবাই লাইট জ্বালিয়ে ঘুমায়।