অজানা তথ্য

এক রহস্যময় ‘বৃষ্টি মানব’, যেখানেই যান সাথে সাথে নেমে আসে তুমুল বৃষ্টি

বিশ্বে এমন এমন কিছু ঘটনা ঘটে চলেছে যার রহস্যের সমাধান এখনও পর্যন্ত খুঁজে পায়নি তাবড় তাবড় বিজ্ঞানীরা। তেমনি এক অমীমাংসিত রহস্যের কথা জানা গিয়েছে আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের পেনসিলভেনিয়ায় বসবাসরত ডন ডেকারের, যিনি রেইন ম্যান অর্থাৎ বৃষ্টি মানব নামে পরিচিত। তিনি যেখানেই যান সাথে সাথেই বৃষ্টি শুরু হয়, কিন্তু কেন হয়?

It rains wherever this person goes | News Track Live, NewsTrack ...

ঘটনাটি ১৯৮৩ সালের। ডন ডেকার ও তার কয়েকজন বন্ধু ভাড়া নিয়ে একটি বাড়িতে থাকতো। একদিন হঠাৎ ছাদ থেকে জলের ফোঁটা পড়তে থাকে। সন্দেহবশত সকলে মিলে ছাদে যায় কিন্তু কোথাও কিছু খুঁজে পায়নি। এর মধ্যে সবচেয়ে আশ্চর্যজনক বিষয় হলো, শুধুমাত্র হল রুমটিতেই বৃষ্টির ফোঁটা পড়ছিল যেখানে ডন বসেছিল, এমনকি তিনিও অবাক হয়ে যান, বুঝতে পারছিলেন না তার সাথে কি ঘটছে। 

এরপর তার বন্ধুরা দেরি না করে ডনকে সেই বাড়ি থেকে বের করে নিয়ে যেতেই বৃষ্টি থেমে যায়, যা দেখে সকালে অবাক হয়েছিল। এরপর একটি রেস্তোরাঁতেও ডনের একই ঘটনা ঘটে। ওই রেস্তোরাঁয় পৌঁছাতেই হঠাৎ করে সেখানে বৃষ্টি শুরু হয়।  

এটি দেখে রেস্তোরাঁর মালিক মনে করলেন যে ডনের সাথে কোন অশরীরীর ছায়া পড়েছে। বিপদ বুঝেই তাদের চলে যেতে বলেন এবং বাইরে বের হতেই  বৃষ্টিও থেমে যায়। এরপর ডন বুঝতে পারেন কেবল ঘরের ভিতরেই তার সাথে এটি ঘটছে। 

এদিকে তিনি কোন অপরাধে জড়িত ছিলেন আর তাকে কারাগারে যেতে হয়েছিল। কিন্তু সেখানেও একই ঘটনা ঘটে। পুলিশকর্মীরা তা দেখে অবাক হয়ে যান, কারণ এর আগেও যখন তিনি কারাগারে বন্দি ছিলেন এমন কিছুই ঘটেনি।

Don Decker's Demonic Possession

এরপর পুরো বিষয়টি গির্জার এক যাজককে জানানো হয়। ওই যাজকের আসার আগে পর্যন্ত কারাগারের সমস্ত কিছু বৃষ্টিতে ভিজে গিয়েছিল একমাত্র বাইবেল বইটি ছাড়া। এরপর যখন ধর্মযাজক বাইবেল বইটি পড়া শুরু করেন সাথে সাথেই বৃষ্টি থেমে যায়।   

এটি ছিল ডনের সাথে শেষ বৃষ্টিভেজা ঘটনা। এরপর আর কখনো তার সাথে এমনটা হয়নি। কারাগারে এই সময় পুলিশ সদস্যরা ছাড়াও অনেকেই সাক্ষী ছিলেন। এর কয়েক বছর পর ডন একটি টিভি চ্যানেলের সাক্ষাৎকারে জানিয়েছিলেন যে, সম্ভবত তার মৃত দাদা এমনটা তার সাথে করছিলেন।

তবে ডনের সাথে ঘটে যাওয়া ঘটনাগুলিকে কিছু লোক বিশ্বাস করেন না, আবার অনেকে আছেন এটিকে অলৌকিক ঘটনা বলে মনে করেন। তবে যাই হোক না কেন, প্যারানরমাল গবেষকরা এই বিষয়টি নিয়ে এখনও ধন্দে রয়েছেন।

তথ্যসুত্রঃ THE RAIN MAN