স্বাস্থ্যহেলথ টিপস

গলায় মাছের কাঁটা বিঁধলে চটপট নামিয়ে ফেলার কয়েকটি সহজ পদ্ধতি 

এমন কোন বাঙালি নেই যার মাছ খেতে গিয়ে গলায় তার কাঁটা বেঁধেনি! অনেকে এই কারণে মাছ খাওয়া প্রায় ছেড়ে দিয়েছেন আবার কেউ কেউ তাড়াহুড়ো করে খেতে গিয়ে এই বিপত্তি ডেকে আনেন। তবে সত্যিই যে গলায় মাছের কাঁটা বিঁধলে প্রচন্ড অস্বস্তি হয়। কিন্তু এই সময়ে অনেকেই সঠিক পদ্ধতি না জেনে অস্বস্তিকে আরো বাড়িয়ে তোলে।

আজকের প্রতিবেদনে রইল, গলায় মাছের কাঁটা বিঁধলে চটপট নামিয়ে ফেলার কয়েকটি সহজ পদ্ধতি! চলুন জেনে নেওয়া যাক –

কোক: বাড়িতে কোক জাতীয় পানীয় খাবার থাকলে তার চটপট খেয়ে নিন। গলা থেকে কাঁটা নামানোর এটি একটি অত্যাধুনিক পদ্ধতি। এক নিমেষে যতটা সম্ভব গলায় ঢেলে নিন খুব শীঘ্রই কাঁটা নরম হয়ে নেমে যাবে।

অলিভ অয়েল: অলিভ অয়েল অনেকেই স্বাস্থ্যের উপকার খেয়ে থাকেন। যেহেতু এটি পিচ্ছিল একটি পদার্থ তাই মাছের কাটা গলা থেকে নামাতে ভীষণ উপকারে আসে। খুব শীঘ্রই এই অস্বস্তি থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

পাতিলেবু: মাছের কাঁটা গলা থেকে নামাতে পাতিলেবুর জুড়ি মেলা ভার। পাতিলেবুর রস নিমেষে মাছের কাঁটাকে নরম করে ফেলতে পারে। অর্ধেক একটি পাতি লেবু কেটে নুন মাখিয়ে খেয়ে নিন।

কলা: কলা পিচ্ছিল খাদ্য, তাই গলায় মাছের কাঁটা বিঁধলে চটপট নামাতে সাহায্য করে। এই সময়ে কলা খেলে কখন যে গলা থেকে নেমে যাবে তা টেরও পাবেন না।

ভিনিগার: গলায় মাছের কাঁটা ফুটলে ভিনিগার ভীষণ কাজে আসে। জলের সাথে মিশিয়ে ভিনেগার খেলে তা সহজেই কাঁটাকে নরম করে নামাতে সাহায্য করে। এটিও পাতিলেবুর মত কাজ করে।

সাদা ভাত: গলায় মাছের কাঁটা ফুটলে সবথেকে সহজ পদ্ধতিটি হলো সাদা ভাত ছোট ছোট বলের মত করে গিলে নেওয়া। কিন্তু মনে রাখবেন চিবিয়ে খেলে কিন্তু কখনোই কাঁটা গলা থেকে নামবে না।

জল: উপরিক্ত কোন উপাদানগুলি যদি আপনার হাতের কাছে না থাকে তাহলে জল খেয়েই মাছের কাঁটা গলা থেকে নামাতে হবে। সবথেকে ভালো হয় হালকা গরম জলে সামান্য নুন মিশিয়ে খেলে কাঁটা নরম হয় এবং এই অস্বস্তি থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

error: Content is protected !!