অন্যান্য

সকাল থেকেই গম্ভীর নাকি নিখোঁজ, পোস্টার টাঙ্গানো হল গাছে গাছে

প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার এবং বিজেপি নেতা গৌতম গম্ভীর নাকি নিখোঁজ? আজ সকালে প্রতিটি গাছে গৌতম গম্ভীরের ছবি লাগিয়ে তাতে নিখোঁজ হওয়ার পর পোস্টার টাঙিয়ে দেওয়া হয়েছে এবং পোস্টারের নিচে লিখে দেওয়া হয়েছে আপনি কি দেখেছেন গৌতম গম্ভীরকে? তবে শেষবার আপনি নিশ্চয়ই দেখে থাকবেন তাকে জিলিপি খেতে! বিরোধী পাটিরা গৌতম গম্ভীর এর ওপর খুবই ক্ষুব্ধ হয়ে এমনই কাজ করেছেন বলে জানা গেছে। খবর সূত্রে জানা যায়, গৌতম গম্ভীর বারবার দিল্লির বায়ু দূষণ নিয়ে কথা বলেছিলেন কিন্তু এক জরুরী কালীন মিটিংয়ে যোগদান না করায় তাকে নিয়ে এইভাবে গাছে গাছে পোস্টার টানিয়ে দেওয়া হল। 

Image

সম্প্রতি দিল্লিতে দূষণ নিয়ন্ত্রণের জন্য সংসদীয় স্থায়ী কমিটির দ্বারা একটি বৈঠক ডাকা হয়েছিল। আর তাতেই গৌতম গম্ভী্রের উপর প্রচন্ডভাবে ক্ষুব্ধ হয়েছেন বিরোধী নেতারা। কারণ তিনি ওই অনুষ্ঠানে যোগদান না করায় আম আদমি পার্টি (এএপি) তার উপরে প্রচন্ডভাবে দায়িত্বহীনতার পরিচয় দিয়ে গাছে গাছে পোস্টার টানিয়ে দেন। কোথায় গেল তার দূষণ নিয়ে, সমালোচনা ও সহানুভূতি? এখন সেটাকে কেন্দ্র করে বিরোধী নেতারা তীব্র আন্দোলন জারি করেছে, যা খুব দ্রুত সোশ্যাল-মিডিয়ায়-ভাইরাল হয়ে যায়।

আজ রবিবার সকালে গম্ভীরের নিখোঁজ হওয়ার পোস্টগুলি দিল্লির আইটিও এলাকায় এখানে সেখানে লাগানো হয়। আম আদমি পার্টি এই কাজটি করেছে এবং তা জনগণের মধ্যে খুবই আলোচিত হচ্ছে। এই নিখোঁজ হওয়ার পোস্টটা গুলিতে গম্ভীরের ছবি নিচে পরিষ্কার লেখা রয়েছে “আপনি কি দেখেছেন? শেষবার তাকে জিলিপি খেতে ইন্দোরে দেখা গিয়েছিল।”

প্রসঙ্গত জানিয়ে রাখি, গম্ভীর ১৫ নভেম্বর দূষণ দূরীকরণ নিয়ে একটি সভায় অংশ নেন নি। এর পরে সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁর একটি ছবি খুব ভাইরাল হয়ে উঠছিল, তাতে গম্ভীরকে দেখা যায় কয়েকজন বন্ধুবান্ধব নিয়ে ইন্দোরের রাস্তায় জলেবি (জিলিপি) খেতে।

Image

এর পরে, শনিবার সন্ধ্যায় এএপি কর্মীরা জিলিপি প্লেটে তুলে দিল্লির রাস্তায় নেমে তীব্র প্রতিবাদ নেমেছিল। এএপি নেতাকর্মীরা বলেছিলেন যে, দিল্লিতে অনুষ্ঠিত দূষণ নিয়ন্ত্রণ কমিটির গুরুত্বপূর্ণ সভা ছেড়ে সাংসদ গৌতম গম্ভীর ক্রিকেট ম্যাচের ধারাভাষ্যকারের পাশাপাশি জিলিপি খাওয়ার অনুষ্ঠানে যোগদান করেন। তাতে ভারতীয় জনতা পার্টির এ নিয়ে কোনও আক্ষেপ নেই। দিল্লিতে দূষণের মাত্রা অত্যন্ত বিপজ্জনক স্তরে পৌঁছেছে বলে তারা দাবি জানিয়েছেন।

error: Content is protected !!