Connect with us

Cricket

সৌরভ গাঙ্গুলীর জন্য বীরেন্দ্র সেহবাগ মারকুটে ব্যাটসম্যান হয়েছিলেন

নজফগরের নবাব বা আধুনিক ক্রিকেটের জেন মাস্টার বীরেন্দ্র ১৯৯৯ সালে অজয় জাদেজার নেতৃত্বে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে একদিনের ক্রিকেটে অভিষেক হয়েছিল তার। প্রথম দিকে তিনি মিডিল অর্ডারে ব্যাট হাতে নামতেন। এরপর তাকে ওপেনিং এর সুযোগ করে দিয়েছিলেন মহারাজ সৌরভ গাঙ্গুলী। তার পরেই তিনি নিজেকে বিশ্বক্রিকেটে মেলে ধরার সুযোগ পান।

Related image

তবে জানা গেছে প্রথম দিকে তিনি এতটা মারকুটে ব্যাটসম্যান ছিলেন না, একজন সাধারন ডানহাতি ব্যাটসম্যান এর মতই তিনি খেলতেন। তার ব্যাটিংয়ে স্ট্রাইক রেট অর্থাৎ বিধ্বংসী ভাবে তার ব্যাটিংয়ে পরিবর্তন এসেছিল সৌরভ গাঙ্গুলীর কথা শুনে। প্রথম ম্যাচে পাকিস্তানের সাথে খেলার সময় তিনি শুরুতেই আউট হয়ে ফিরে গিয়েছিলেন। বীরেন্দ্র শেবাগ জানিয়েছেন, প্রথম ম্যাচে শোয়েব আক্তারের বল তিনি ভালো করে দেখতেই পাননি। তার বলের গতি এত জোর ছিল তার ধারণার বাইরে।

দেখুন ভিডিওঃ বৃষ্টিকে থামিয়ে, ছক্কা মেরে সেঞ্চুরি করলেন রোহিত শর্মা!

ভালো স্কোর করতে না পেরে মন খারাপ করে তিনি মাথা গুঁজে টিম বাসের একদম পিছন দিকে বসে ছিলেন। সৌরভ গাঙ্গুলী তার মানসিক অবস্থার কথা জানতে পেরে তাকে এমন গুরু মন্ত্র দিয়েছিলেন যা সেই কারণে তিনি বিশ্ব ক্রিকেটে একজন বিধ্বংসী মারকুটে ব্যাটসম্যান হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছে।

Image result for Virendra Sehwag 1999

সৌরভ গাঙ্গুলী তাকে এসে সাহস যুগিয়েছিল। বীরেন্দ্র সেহবাগ জানিয়েছেন, সেদিন তিনি খুব অসহায় হয়ে বসেছিলেন। তার পাশে দাঁড়িয়েছিলেন সৌরভ গাঙ্গুলী এবং শচীন তেন্ডুলকর। সৌরভ গাঙ্গুলী এসে তাকে বলে এর পরের ম্যাচ গুলিতে তুই এত মার মারবি যেন সেলেক্টররা তোকে বাদ দেওয়ার কথা চিন্তা করতে না পারে। তার পরের ম্যাচেই একটি দুর্ধর্ষ ইনিংস খেলেছিলেন বীরেন্দ্র শেবাগ। এরপর তাকে আর কখনো পিছন ফিরে তাকাতে হয়নি।

Image result for virender sehwag sourav ganguly

সৌরভ গাঙ্গুলীর জন্য একজন সাধারন ডানহাতি মিডল অর্ডারের ব্যাটসম্যান একজন মারকুটে ওপেনার হিসেবে সারা বিশ্বে পরিচিতি লাভ করে। বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের বোলারদের ধারণা ছিল ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা কখনোই মারকুটে হতে পারে না। কিন্তু তাদের ধারণায় জল ঢেলে দিয়েছিল বীরেন্দ্র সেহবাগ। যেকোনো মাঠেই হোক বা পিচে, রাতে অথবা দিনে বা যেমনি আবহাওয়া থাকুক না কেন তিনি বোলারদের যেভাবে শায়েস্তা করতেন হয়তো তাদের আগের রাত থেকেই ঘুম উড়ে যেত। তার কাছে টেস্ট হোক বা একদিনের ম্যাচ সবকিছুই সমান চোখে দেখতেন।

Continue Reading
Click to comment

Trending ..

To Top