Connect with us

Facts

যে গ্রামের প্রতিটা মানুষই কোটিপতি, ভোগ করছে বিলাসবহুল জীবনযাপন

গ্রাম সম্পর্কে আমাদের প্রথমে যে ধারণাটা আসে তাহলো অনুন্নত, পরিকাঠামোর অভাব, আর্থিক দিক থেকেও বেশ গ্রামবাসীরা সচ্ছল না একমাত্র ফসল ক্ষেতের উপর নির্ভর করেই অধিকাংশ মানুষ জীবন যাপন করেন। এমনকি চিকিৎসা বা শিক্ষা ব্যবস্থাও ততটা উন্নত নয়। খবর সূত্র এমন একটা গ্রামের সন্ধান পাওয়া গেল সেই গ্রামে নাকি সবাই কোটিপতি।

গ্রাম সম্পর্কে আধুনিক শহরবাসীদের মনে যে ধারণা আছে এই গ্রাম সম্পর্কে জানলে তাদের কাছেও অনেকটাই অনুন্নত মনে হবে। কারণ এই গ্রামে রয়েছে অত্যাধুনিক সমস্ত ব্যবস্থা। শিক্ষা, চিকিৎসা, শিল্প বাণিজ্য সবদিক থেকেই যেকোনো বড় বড় বাণিজ্য নগরীকে হার মানাতে পারে। আর এই গ্রামের প্রতিটি মানুষের ব্যাংক একাউন্টে অন্তত এক কোটি টাকা জমা করেছে সরকার। তাহলে এটিকে গ্রাম আর বলা চলে না “সুপার ভিলেজ” নামে পরিচিত হয়েছে।

Image result for China super village

এই গ্রামটি চিনে অবস্থিত, জিয়ংজু প্রদেশের হুয়াক্সি নামক এক গ্রাম। খবর সূত্রে জানা গিয়েছে এই গ্রামটি গড়ে উঠেছিল ৬০ দশকের দিকে। তখন অন্যান্য সাদামাটা গ্রামের মতোই ছিল এই গ্রামের একই অবস্থা। অধিকাংশ জায়গা কৃষি কাজ চলত, পুরোটাই কাঁচা রাস্তা দিয়ে ঘেরা আর সব বাড়িগুলি কাঁচা বাড়ি দিয়ে তৈরি ছিল। যাকে বলে একেবারে এখন অনুন্নত গ্রাম, কিন্তু আজ সে গ্রামের প্রতিটা বাসিন্দা কোটিপতি।

আসলে এই গ্রামকে আধুনিক করতে অক্লান্ত পরিশ্রম করে ছিল এক রাজনৈতিক কমিউনিস্ট পার্টি। তাদের প্রচেষ্টাতেই এই গ্রামের রূপ সম্পূর্ণরূপে বদলে যায়। হুয়াক্সি গ্রামের বাসিন্দারা তাদেরকে শহরবাসীদের তুলনায় কোনো অংশে কম ভাবে না। একসময় যারা কৃষি কাজ করে জীবন যাপন করত আজ তাদের প্রতিটা ব্যাংকে কোটি টাকা করে মজুদ রয়েছে।

Related image

প্রায় দুই হাজারের কাছাকাছি মানুষের বসবাস রয়েছে আর প্রতিটি বাসিন্দাকেই দেওয়া হয়েছে অত্যাধুনিক জীবনযাপনের সুযোগ। বিলাসবহুল বাড়িঘর, গাড়ি এবং আরো অন্যান্য সকল সুবিধা এই গ্রামবাসীরা এখন ভোগ করছে। তাদেরকে জীবন যাপনের জন্য কোন টাকায় খরচ করতে হয় না। বিলাসবহুল জীবনযাপন কেবল তাদের জন্যই করা হয়েছে।

এখন সকলের মনে প্রশ্ন হতে পারে একটা সাধারণ গ্রামের বাসিন্দারা কিভাবে রাতারাতি কোটিপতি হয়ে গেল! খবর সূত্রে জানা গিয়েছে এই গ্রামে স্থাপিত হয়েছে বেশ কয়েকটি বড় বড় শিল্প তৈরি হয়েছে আর এই সংস্থার বার্ষিক লাভ হয় তার ২০% গ্রামবাসীদের মধ্যে বন্টন করা। এর ফলে গ্রামটি সমৃদ্ধ হয়ে ওঠে।

Image

এমনকি এই গ্রামে ৭০ তলের বেশিও একটি ভবন নির্মাণ করা হয়েছে। এছাড়া রয়েছে অত্যাধুনিক শপিংমল এবং থিম পার্ক এমনকি এখানে হেলিকপ্টারের সেবাও সহজেই পাওয়া যায়। এমনকি এই গ্রামবাসীদের বাড়ির নকশাগুলি এমনভাবে তৈরি করা হয়েছে মনে হবে সারি সারি দাঁড়িয়ে আছে বড় বড় ফাইভ স্টার হোটেল। তবে এখানে নিয়মের দিক থেকেও বেশ কড়াকড়ি করা আছে। সপ্তাহের ৭ দিনই কাজ করতে হয় আর গ্রামে সবরকম অনৈতিক কাজ নিষিদ্ধ আছে। তবে এই গ্রাম ছেড়ে কেউ যদি একবার চলে যায় তাহলে তার সমস্ত সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করে নেয় সেখানকার প্রশাসন।

Continue Reading
Click to comment

Trending ..

To Top