ক্রিকেট

দল থেকে বাদ দেওয়ার আগেই ধোনির অবসর নেওয়া উচিত: সুনীল গাভাস্কার

ভারতীয় প্রাক্তন অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনির সম্ভবত অন্তিম সময় এসে গেছে কারণ তার জায়গায় একঝাঁক ক্রিকেটার প্রস্তুতি নীল জার্সিতে খেলার জন্য এমনটাই মনে করছেন ভারতের এক অবসরপ্রাপ্ত ক্রিকেটার। তাই মহেন্দ্র সিং ধোনিকে সঠিক সিদ্ধান্ত নিতেই তিনি বললেন। যাতে দল থেকে বাদ পড়ার আগেই তিনি সসম্মানে অবসর নিয়ে নেয় – সেই ইঙ্গিত দিলেন তিনি।

বিশ্বকাপে পর থেকেই মহেন্দ্র সিং ধোনির অবসর নিয়ে চারিদিকে জল্পনা-কল্পনার শুধু ছড়িয়ে গেছে। তবে এই নিয়ে কখনোই তার মুখ থেকে কিছু শোনা যায়নি। এমনকি ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড থেকেও মহেন্দ্র সিং ধোনির অবসরের ইঙ্গিত দেয় নি। এই প্রসঙ্গে অনেক কথা উঠেছে তবে বিসিসিআইয়ের কর্মকর্তারা ব্যাখ্যা দিয়েছেন এখানে ধোনির বিদায়ের সাথে যোগাযোগ নেই।

বিশ্বকাপের পরেই তিনি দুই মাসের জন্য যখন বিসিসিআই এর কাছে ছুটি চেয়ে ছিলেন তখন অনেকেই হয়তো ভেবেছেন মহেন্দ্র সিং ধোনি অবসর নিলেন কিন্তু এমনটা হয়নি। তিনি ফিরে এসেছেন কিন্তু তাকে দেখা যায়নি ২২ গজে। সরিয়ে রেখেছেন তরুণদের সুযোগ করে দেওয়ার জন্য। আর কিছুদিন আগেই একটি গুজব রটেছিল মহেন্দ্র সিং ধোনি অবসর নিতে চলেছেন ওইদিন সন্ধ্যায়, মুহূর্তের মধ্যে সেই খবর ইন্টারনেটে ভাইরাল হয়ে যায়। এই প্রসঙ্গে বেজায় চটেছেন ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড থেকে ধোনির স্ত্রী সাক্ষী।

বোর্ডের পক্ষ থেকে বারবার বলা হয়েছে, ধোনি কখন অবসর নেবেন এ কথা তিনি ভাল জানবেন। এ বিষয়ে কারও ব্যক্তিগত হস্তক্ষেপ থাকা উচিত নয়। এখনো দলে বিরাট কোহলি মহেন্দ্র সিং ধোনিকে এক অপরিহার্য বলে মনে করেন। তিনি বলেন যে এখনো তার দলে ধোনি কে দরকার। তবে এবার সরাসরি ধোনির অবসর নিয়ে মুখ খুললেন সুনীল গাভাস্কার।

সুনীল গাভাস্কার বলেছেন, “ধোনির অবসর নিয়ে প্ল্যানিং কি আছে এটা কেউ জানে না। একমাত্র তার মনে আছে তিনি আগামী দিনের জন্য কি ভেবে রেখেছেন। এখন ওর বয়স ৩৮, যখন টি-টোয়েন্টি  বিশ্বকাপ হবে তখন ও ৩৯ হবে। তাই ভারতীয় ক্রিকেটকে এই বিষয়ে ভাবতে হবে আর ধোনিকে ছাড়াই দল গঠন করতে হবে। এছাড়াও তিনি বলেছেন যে, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য রিশব পান্থ তার প্রথম পছন্দ, আর দ্বিতীয় হলেন সঞ্জু স্যামসন। পান্থের বাজে পারফরম্যান্সে অবধারিত থাকলেও গাভাস্কার আশাবাদী আগামী দিনে পান্থ নিজের সেরাটা দেবেন।