ক্রিকেট

টেস্ট ম্যাচের চতুর্থ ইনিংসে দ্রুততম সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন এই তিন ব্যাটসম্যান

ক্রিকেটের তিনটি ফরম্যাটের মধ্যে টেস্ট ফরম্যাটকে সবচেয়ে কঠিন বলে ধরা হয়। একটি টেস্ট ম্যাচ চলাকালীন ব্যাটসম্যান এবং বোলার উভয়ের ধৈর্যের ও দক্ষতার পরীক্ষা হয়। টেস্ট ক্রিকেটে এখনো পর্যন্ত অনেক ব্যাটসম্যান রয়েছেন যারা দীর্ঘ সময় ধরে ব্যাটিং করেছেন এবং কয়েক হাজার রান করতে সক্ষম হয়েছেন।

যাইহোক, টেস্ট ম্যাচ চলাকালীন চতুর্থ ইনিংসে ব্যাটিং করা সহজ নয়। কারণ চতুর্থ ইনিংসে পিচ খুবই খারাপ হয়ে যায় এবং বোলারদের জন্য সহায়ক হয়ে ওঠে। তবে টি-টোয়েন্টি স্টাইলে দুর্দান্ত ব্যাটিং করে ম্যাচের চতুর্থ ইনিংসে সেঞ্চুরি করেছেন অনেকেই। এই প্রতিবেদনে এমন ৩ জন ব্যাটসম্যানের কথা বলা হয়েছে যারা টেস্ট ম্যাচের চতুর্থ ইনিংসে দ্রুততম সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন।

৩) শাহিদ আফ্রিদি: ৭৮ বল 

পাকিস্তানের বিধ্বংসী ব্যাটসম্যান শাহিদ আফ্রিদি টেস্ট ক্রিকেটেও দ্রুতগতিতে রান করার জন্য পরিচিত ছিলেন। ২০০৫ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে একটি টেস্ট ম্যাচের চতুর্থ ইনিংসে মাত্র ৭৮ বলের মুখোমুখি হয়ে সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছিলেন, যা টেস্ট ক্রিকেটের চতুর্থ ইনিংসে তৃতীয় দ্রুততম সেঞ্চুরি। এই ইনিংসে শাহিদ আফ্রিদি ১২২ রানের দুরন্ত ইনিংস খেলেছিলেন এবং তার এই ইনিংসে ছিল ৯টি চার ও ৬টি ছক্কা।

২) জনি বেয়ারস্টো: ৭৭ বল

চলতি ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ডের দ্বিতীয় টেস্ট ম্যাচটি নটিংহামে অনুষ্ঠিত হয়। এই ম্যাচে নিউজিল্যান্ড জয়ের জন্য ২৯৯ রানের টার্গেট দিয়েছিল। চতুর্থ ইনিংসে ইংল্যান্ডের টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানরা দ্রুত ফিরে গেলে উইকেট-রক্ষক ব্যাটসম্যান জনি বেয়ারস্টো টি-টোয়েন্টি স্টাইলে ৯২ বলে ১৩৬ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলেন। ফলে ইংল্যান্ড দল এই কঠিন টার্গেট অর্জন করে। জনি বেয়ারস্টোর সেঞ্চুরিটি এসেছিল মাত্র ৭৭ বলে।

১) গিলবার্ট জেসুপ: ৭৬ বল

টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে চতুর্থ ইনিংসে দ্রুততম সেঞ্চুরি করার রেকর্ডটি রয়েছে ইংল্যান্ডের ব্যাটসম্যান গিলবার্ট জেসুপের নামে। তিনি ১৯০২ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে মাত্র ৭৬ বলের মুখোমুখি হয়ে সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছিলেন। তার এই ইনিংসে ছিল ১৭টি বাউন্ডারি। চতুর্থ ইনিংসে জেসুপের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ের কারণে অস্ট্রেলিয়াকে ১ উইকেটে পরাজিত করে ইংল্যান্ড দল।

error: Content is protected !!