‘কাশ্মীরের থেকেও ভয়াবহ পরিস্থিতি বাংলায়’ মুক্তি পেল ‘দ্য ডায়েরী অফ ওয়েস্ট বেঙ্গল’ ছবির ট্রেলার

‘দ্য ডায়েরী অফ ওয়েস্ট বেঙ্গল’ ছবির ট্রেলার মুক্তি পেতেই বিতর্ক শুরু!

The Diary of West Bengal: বাঙালি পরিচালক সুদীপ্ত সেনের ‘দ্য কেরালা স্টোরি’র ছবির বিতর্ক শেষ হতে না হতেই আরেক নতুন ছবি নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়েছে পশ্চিমবঙ্গে। পরিচালক সানোজ মিশ্রর ছবির নাম ‘দ্য ডায়েরী অফ ওয়েস্টবেঙ্গল’। এই ছবির ট্রেলার মুক্তি পেতেই নড়েচড়ে বসলো বাংলার পুলিশ। ছবির পরিচালকের কাছে পাঠানো হলো আইনি নোটিশ।

এই অভিযোগের ভিত্তিতে বলা হয়েছে, এই ছবিটির মধ্য দিয়ে বাংলার সম্মানকে ক্ষুন্ন করার চেষ্টা করা হয়েছে। আগামী ৩০মে পরিচালক সানোজ মিশ্রকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডাকা হয়েছে। ভারতীয় দণ্ডবিধি (আইপিসি), আইটি আইন এবং সিনেমাটোগ্রাফি আইনের বিভিন্ন ধারায় ছবির পরিচালকের বিরুদ্ধে একটি এফআইআর নথিভুক্ত করা হয়েছে।

Image

তবে সংবাদ সংস্থা ANI-এর সাক্ষাৎকারে ছবির পরিচালক সানোজ মিশ্র জানিয়েছেন, “বাংলার সম্মান ক্ষুন্ন করার জন্য এই ছবিটি তৈরি হয়নি। আমরা বাস্তবটা তুলে ধরার চেষ্টা করেছি। ছবিটা ভালোভাবে গবেষণা করার পরেই তৈরি হয়েছে। ”সদ্য মুক্তি পাওয়া এই ছবির ট্রেলারে দেখা গেছে বাংলায় ঘটে যাওয়া কিছু দৃশ্য।

এই ট্রেলারে দেখানো হয়েছে বাংলার রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত ব্যক্তিত্বদের মতোই করে চরিত্র সংলাপ করা হয়েছে। এমনকি মুখ্যমন্ত্রী মমতার বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Mamata Banerjee) আদলে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে এক চরিত্রকে। ছবির ট্রেলারে, সত্য ঘটনার উপর ভিত্তি করে দাবি করা হয়েছে।

এও বলা হয়েছে, যে বাংলা অসংগঠিত হিন্দুদের জন্য ‘দ্বিতীয় কাশ্মীর’ হয়ে উঠেছে। একটি চরিত্র দাবি করেছে যে, রোহিঙ্গা মুসলমানদের জন্য হিন্দুদের বাড়ি ছেড়ে যেতে বাধ্য করা হয়েছে। ট্রেলারটি আরও অভিযোগ করেছে যে, রাজ্যে তুষ্টির রাজনীতির ফলে হিন্দু উৎসব গুলিতে বিধিনিষেধ রয়েছে। ছবিটি লিখেছেন জিতেন্দ্র নারায়ণ সিং ত্যাগী (ওয়াসিম রিজভি), যিনি ২০২১ সালের ডিসেম্বরে হিন্দুধর্মে ধর্মান্তরিত হয়েছিলেন।

error: Content is protected !!