অজানা তথ্য

ভারতবর্ষের এই জায়গায় বর কেনাবেচা হয়, মেয়ের পরিবার এসে পছন্দ করে

ভারতীয় ঐতিহ্যে বিবাহ একটি উৎসবের মতো, যেখানে পুরো পরিবার এবং আত্মীয়রা জড়ো হয়। প্রতিটি রাজ্যে বিভিন্ন ধরনের বিবাহের রীতিনীতি রয়েছে। কিন্তু ভারতবর্ষের এমন একটি জায়গা রয়েছে যেখানে বর কেনাবেচা হয়। এটি কোন রসিকতা নয়, এটি সত্য।

বিহারের মধুবনী জেলায় এমন একটি বাজার রয়েছে যেখানে বরেরা বিক্রির জন্য সারি সারি দাঁড়িয়ে থাকে। মেয়ের পরিবার থেকে লোকজন আসে এবং তাদের মেয়েকে দরদাম করে বিয়ে দেয়। এই বাজারটি কয়েক শতাব্দি ধরে হয়ে আসে এবং এখানকার লোকেরা একে ঐতিহ্যের মতো দেখে।

Image

এই বাজারে নাম সৌরথ সভা। এটি বিহারের মধুবনীতে প্রতিবছর অনুষ্ঠিত হয়। এই বাজারটি জুন থেকে জুলাই মাসে বসে, যেখানে বিবাহযোগ্য ছেলেমেয়েরা আসে। এই বাজারে মেয়েরা এসে ছেলের (বর) যোগ্যতা, বাড়ি, পরিবার এবং আয় সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করে। এরপর মেয়েটির সিদ্ধান্ত নেয় যে ছেলেটিকে পছন্দ করবে কিনা।

এই বাজারে পুরুষরাই প্রধান ভূমিকা পালন করে। এখানে শুধুমাত্র পুরুষেরা তাদের মেয়ের জন্য বর বেছে নেয় এবং উভয় পরিবারের পুরুষরা একে অপরের সাথে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেয় যে বিয়েতে কত খরচ হবে এবং মেয়েটিকে ছেলেটিকে কি যৌতুক বা উপহার দিতে হবে। তবে বিয়েতে কত খরচ হবে তা সম্পূর্ণ নির্ভর করে ছেলেটির উপার্জনের উপর।

বরের এই বাজারকে বলা হয় সৌরথ সভা। গত ৭০০ বছর ধরে এই ঐতিহ্য চলে আসছে। এটি কর্ণাটক রাজবংশের রাজা হরি সিং দ্বারা চালু হয়েছিল, যাতে তিনি বিভিন্ন গোত্রের লোকেদের সাথে বিয়ে দিতে পারেন এবং তখন যৌতুকের প্রথা ছিল না। তবে পরবর্তীকালে সমাজ হয়তো এই বিয়ের প্রথা অব্যাহত রেখেছে, কিন্তু এতে যৌতুক প্রথা অবশ্যই যুক্ত হয়েছে।