Connect with us

News

NRC এর জন্য কি কি সার্টিফিকেট প্রয়োজন, দেখে নিন তালিকা

এনআরসি (NRC) কি? বর্তমানে এনআরসি ভারতের একটি ট্রেনিং খবর অর্থাৎ ন্যাশনাল রেজিস্টার অফ সিটিজেন, যা কেবল প্রকৃত ভারতীয় নাগরিকের পরিচয় বহন করে। এটি বর্তমানে ভারতের আসাম রাজ্যে নিবন্ধিত হয়েছে, যেখান থেকে বাদ পড়েছে ১৯ লক্ষ মানুষের নাম। এবার পশ্চিমবঙ্গেও বাদ পড়তে চলেছে প্রায় দুই কোটি মানুষ, যার জেরে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী কেন্দ্রকে হুমকি দিয়েছেন জীবন থাকতে কখনোই বাংলাতে NRC হতে দেবে না।

আসামে এনআরসি (NRC) কি? এনআরসি হলো মূলত এই রাজ্যের বসবাসকারী প্রকৃত ভারতীয় নাগরিকদের একটি তালিকা। পার্শ্ববর্তী দেশ থেকে অর্থাৎ বাংলাদেশে কিংবা ব্রিটিশ নাগরিকদের সনাক্ত করার জন্য এই নীতি চালু করা হয়েছে। ২০১৩ সালে সুপ্রিম কোর্টের আদেশ অনুযায়ী এই প্রক্রিয়াটি শুরু হয়েছিল। ১৯৭১ সালে আগে পর্যন্ত আসাম রাজ্যের ৪০ লক্ষ মানুষ ভারতীয় ছিলেন বলে প্রমাণ করেন, কিন্তু এই সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হওয়ার পর ১৯ লক্ষ এর বেশি মানুষ ভারতীয় নাগরিত্ব হওয়ার কোন প্রমাণ ছিল না। এবার এটি আমাদের রাজ্যে পশ্চিমবঙ্গের হতে চলেছে যদিও রাজ্য সরকার এটির প্রবল বিরোধিতা করেছে কিন্তু কেন্দ্র সরকার তা কোনরকম মানতে রাজি নয়।

একজন মানুষ কিভাবে তার নাগরিত্ব প্রমাণ করবে? আসামের প্রাথমিক নিয়ম অনুযায়ী গুলির মধ্যে হল আবেদনকারী পরিবারের সদস্যদের নাম ১৯৫১-১৯৭১ সালের মধ্যে ভোটার তালিকায় থাকা উচিত। এছাড়াও যেসকল সার্টিফিকেট গুলি থাকা বাধ্যতামূলক সেগুলির মধ্যে হল – আবেদনকারী শরণার্থীর নিবন্ধনকরণ শংসাপত্র, জন্ম সার্টিফিকেট, এলআইসি পলিসি, ভূমি রাজস্ব রেকর্ড, নাগরিকদের শংসাপত্র, পাসপোর্ট, সরকার প্রদত্ত লাইসেন্স (ব্যাংক / পোস্ট অফিস একাউন্ট, স্থায়ী আবাসিক শংসাপত্র, সরকারি কর্মচারী সার্টিফিকেট (যদি থাকে), শিক্ষাগত প্রমাণপত্র এবং আদালতের নথিপত্র।

Image result for NRC

আসামের পর এবার গোটা পশ্চিমবাংলায় এনআরসি চালু করতে যাচ্ছে কেন্দ্র। বরাবরই রাজ্যের বিজেপি নেতা মহলে এই কথা উঠে এসেছে। কেন্দ্রের উচ্চপদস্থ মন্ত্রীরাও এনআরসি চালু করার জন্য আগ্রহ দেখিয়েছেন অমিত শাহ থেকে শুরু করে প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদি। কিছুদিন আগে স্মৃতি ইরানি পশ্চিমবঙ্গে এসে জোর গলায় বলে দিয়েছেন বাংলায় এনআরসি শীঘ্রই হবে। এমনকি বাংলার বিজেপি দল সেই পথেই হেঁটেছেন।

তার পাল্টা জবাব দিয়েছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী, “পশ্চিমবঙ্গ থেকে দুই কোটি মানুষের নাম বাদ দিতে চলেছে কেন্দ্র। দুজনের গায়ে হাত লাগিয়ে দেখুক। এরকমভাবে দেশভাগের চক্রান্ত কোনরকম মানা যাবে না, পাল্টে আমরাও জবাব দিতে পারি। বাংলা ভাগে আমরা জীবন থাকতে রুখে দাঁড়াব। ক্ষমতা দিয়ে অসমকে চুপ করে করিয়েছে কেন্দ্র সেটা বাংলাতে পারবে না।

Continue Reading
Click to comment

Trending ..

To Top