অন্যান্য

৩৭০ ধারা অনুচ্ছেদ বাতিলের পর এক বড় সিদ্ধান্ত নিলেন মোদি সরকার

গত মাসেই মোদি সরকার ৩৭০ অনুচ্ছেদ ধারা কাশ্মীর থেকে বাতিল করে দেয় যার ফলে বড় ঝড় উঠেছিল বিরোধী পক্ষে শুধু তাই নয় পাকিস্তান ক্ষোভে ফেটে পড়ে এমন সিদ্ধান্ত দেখে। যার পরে তারা এমন সিদ্ধান্তকে জঘন্য রূপ দেওয়ার জন্য সারা বিশ্বের কাছে সাহায্য চাইতে গেলে কেউ তাদের পক্ষপাতিত্ব করেনি বরং ভারতের এই বিষয়ে তাদের নাক গলানোর জন্য বারণ করে। তারপর থেকে পাকিস্তান বিভিন্ন ভাবে ভারতকে কোণঠাসা করার প্রচেষ্টা এখনও চালিয়ে যাচ্ছে।

এই প্রথম মোদি সরকার কাশ্মীরে সবচেয়ে উঁচু যুদ্ধক্ষেত্র সিয়াচেনে আধুনিকরণের জন্য পরিকল্পনা গ্রহণ করেছেন। সেখানকার উন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থা সড়ক নির্মাণ গুলি উন্নত করা হবে বলে জানিয়েছেন। মোদি সরকার বলেছেন যে, এটি বিজয়ক প্রকল্পের আওতায় আনা হয়েছে। সিয়াচেন এবং লাদাখ এর মধ্যে উন্নত যোগাযোগ নির্মাণ করা হবে। এছাড়া সিয়াচেন এর প্রতিকূল পরিবেশেও যাতে সেনাবাহিনীদের সমস্যায় পড়তে না হয় তার প্রক্রিয়া এবং প্রযুক্তি দ্বারা উন্নতি করা হবে।

এই অঞ্চলে সারা বছর আবহাওয়া প্রতিকূল থাকে এমনকি গ্রীষ্মকালেও ১০° ডিগ্রী উষ্ণতা দেখা যায়। যেখানে সামরিক কাজকর্ম চালানো খুবই কঠিন হয়ে পড়ে সেনাদের পক্ষে। এমন পরিস্থিতি এবং প্রতিকূল আবহাওয়ায় আধুনিকীকরণ করা হবে উন্নত প্রযুক্তির দ্বারা বলে জানান মোদি।

এছাড়াও তিনি জানিয়েছেন যে, এই প্রতিকূল পরিবেশে ভারী জিনিসপত্র বহন করতে সেনাদের খুবই কষ্ট হয় যে কারণে এখানে একটি সেতু নির্মাণ করা হবে যা সহজেই সিয়াচেনে পৌঁছে যাবে। বিশ্বের উচ্চতম যুদ্ধক্ষেত্র সিয়াচেনে প্রতিমুহূর্তে সেনাদের বিপদের মুখোমুখি হতে হয় আর সেখান থেকে যুদ্ধ করা এবং কাজকর্ম চালানো অত সহজ নয়। সেনাদের সুবিধার্থে এই অঞ্চলে আধুনিকরণের ব্যবস্থা খুবই শীঘ্রই নেওয়া হবে।