Connect with us

শিক্ষনীয় গল্প: আলেকজান্ডার মৃত্যুশয্যায় তাঁর ৩টি ইচ্ছা পূরণ করার কথা বলেছিলেন

Facts

শিক্ষনীয় গল্প: আলেকজান্ডার মৃত্যুশয্যায় তাঁর ৩টি ইচ্ছা পূরণ করার কথা বলেছিলেন

আলেকজান্ডার তাঁর সেনাপতিদের ডেকে বলেছিলেন আমার মৃত্যুর পর আমার তিনটি ইচ্ছা তোমরা পূরণ করবে এতে যেন কোনো ব্যত্যয় না ঘটে। আমার প্রথম ইচ্ছে হচ্ছে শুধু আমার চিকিৎসকেরা আমার কফিন বহন করবেন, আমার দ্বিতীয় হচ্ছে আমার কফিন যে পথ দিয়ে গোরস্থানে নিয়ে যাওয়া হবে সেই পথে আমার সোনা ও অন্যান্য সম্পত্তি ছড়িয়ে দিতে হবে, আমার শেষ ইচ্ছে আমার কফিন বহনের সময় আমার দুইহাত কফিনের বাইরে ঝুলিয়ে নিয়ে যাবে।

How Alexander Became Great: From Child of Zeus to God of Egypt ...

তাঁর মৃত্যুশয্যায় উপস্থিত লোকজন মহাবীর আলেকজান্ডারের এই অদ্ভুত ইচ্ছে গুলো শুনে বিস্মিত হন। কিন্তু এ ব্যাপারে তাঁকে কিছু জিজ্ঞেস করার সাহস পাচ্ছিলেন না কেউ। তখন তার একজন প্রিয় সেনাপতি তার হাতটা তুলে ধরে চুম্বন করে বলেন, হে মহামান্য অবশ্যই আপনার সব ইচ্ছে পূরণ করা হবে কিন্তু আপনি কেন এই অদ্ভুত ইচ্ছে ব্যক্ত করলেন?

দীর্ঘ একটা শ্বাস গ্রহণ করে আলেকজান্ডার বললেন আমি দুনিয়ার সামনে তিনটি শিক্ষা রেখে যেতে চাই আমার চিকিৎসকদের কফিন বহন করতে বলেছি এ কারণে যাতে লোকে অনুধাবন করতে পারে যে চিকিত্সকেরা আসলে কোন মানুষকে সারিয়ে তুলতে পারে না, তারা ক্ষমতাহীন আর মৃত্যুর থাবা থেকে কাউকে রক্ষা করতে অক্ষম।

Alexander the Great Died Mysteriously at 32. Now We May Know Why ...

দ্বিতীয় ইচ্ছে, গোরস্থানের পথে সোনা-দানা ছড়িয়ে রাখতে বলেছি মানুষকে এটা বোঝাতে যে ওই সোনা-দানার একটা কণাও আমার সাথে যাবে না আমি এগুলো পাওয়ার জন্য সারাটা জীবন ব্যয় করেছি কিন্তু নিজের সঙ্গে কিছুই নিয়ে যেতে পারছিনা। মানুষ বুঝুক ধন-সম্পদের পেছনে ছোটা সময়ের অপচয় মাত্র।

তৃতীয় ইচ্ছে, কফিনের বাইরে আমার হাত ছড়িয়ে রাখতে বলেছি মানুষকে এটা জানাতে যে শূন্য হাতে আমি পৃথিবীতে এসেছিলাম আবার সেই শূন্য হাতেই পৃথিবী থেকে চলে যাচ্ছি। পৃথিবীতে অনেক ক্ষমতাবান শাসকের জন্ম হয়েছে যারা সারা জীবন মানুষের ওপর নির্মম অত্যাচার ও জনগণের সম্পত্তি লুট করে নিজেরা সম্পদের পাহাড় গড়েছেন। কারো ক্ষমতায় চিরস্থায়ী নয় কেউ পৃথিবীতে বেঁচে থাকতে পারেনি কারণ সকলকেই মৃত্যুর স্বাদ গ্রহণ করতে হবে।

Continue Reading
Click to comment

Trending ..

To Top