Connect with us

কলার খোসার রয়েছে ৭টি উপকারিতা, যা দৈনন্দিন জীবনে অপরিহার্য

Tips

কলার খোসার রয়েছে ৭টি উপকারিতা, যা দৈনন্দিন জীবনে অপরিহার্য

আমরা সকলেই কলা খাওয়ার পর খোসাটা ফেলে দিই। নিশ্চয়ই আপনিও তার মধ্যে একজন। কিন্তু এই খোসার মধ্যে বিশেষ কিছু উপকারিতা রয়েছে হয়তো জানার পর আর আপনি কখনোই ফেলবেন না। এই খোসার মধ্যে রয়েছে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট, মিনারেল এবং ভিটামিন সহ কয় প্রকার পুষ্টি উপাদান যা আমাদের স্বাস্থ্যক্ষেত্রে অপরিহার্য এবং দৈনন্দিন কাজে ব্যবহৃত হয়।

Image result for peel of banana

তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক কলার খোসার মধ্যে কি কি উপকারিতা রয়েছে –

১। জুতো পলিশ:- বাড়িতে জুতো পালিশ করার ক্রিম নেই? তাহলে চিন্তা করবেন না। জুতোর উপরে কলার খোসা ভালো করে ঘষে লাগিয়ে নিন দেখবেন আগের থেকে অনেক বেশি দেখতে সুন্দর লাগছে একেবারে পালিশ করার মতই। কারণ এর মধ্যে রয়েছে এক ধরনের প্রাকৃতিক তেল যার ফলে লেদারের উপর চকচকে হয়ে ওঠে।

২। রুপার উজ্জ্বলতা ধরে রাখতে:- রুপোর জিনিস পুরনো হয়ে গেলে তার উজ্জ্বলতা কিছুটা হ্রাস পায়। এইসময় কলার খোসা রুপার জিনিসের উপর ঘষুন। কিছুক্ষণ পর জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। ভালো করে শুকিয়ে নিয়ে দেখবেন আগের থেকে অনেকটাই উজ্জ্বল লাগছে।

৩। দাঁত সাদা করতে:- দাঁত হলুদ হয়ে যাওয়া আমাদের চেহারায় একেবারে সৌন্দর্য নষ্ট করে দেয়। এই সময় কোন কিছু পেস্ট কাজে আসে না। তখন একটি কলার খোসা দিয়ে হালকাভাবে দাঁতের উপর ঘষতে থাকুন। দেখবেন ধীরে ধীরে হলদে ভাব দূর হয়ে গেছে। এমনকি দাঁতও পরিষ্কার হয়ে যায়। নিয়মিত ব্যবহার করলে দাঁত সাদা ঝকঝকে হয়ে ওঠে।

Image result for peel of banana for teeth

৪। ব্যথা প্রশমিত করতে:- বিভিন্নভাবে আমাদের শরীরে আঘাতপ্রাপ্ত হয়। ওই ব্যথার স্থানে সরাসরি কলার খোসা কিছুক্ষণ লাগিয়ে রাখুন। দেখবেন ধীরে ধীরে ব্যথা কমে যেতে শুরু করেছে। কারণ এর মধ্যে প্রাকৃতিক ব্যথানাশক এক প্রকার উপাদান রয়েছে।

আরও পড়ুনঃ শরীর থেকে আঁচিল দূর করার কয়েকটি সহজ পদ্ধতি

৫। ব্রণ রোধ করতে:- অনেকে আছেন যাদের ব্রণের সমস্যায় জর্জরিত হয়ে পড়েছেন। যার ফলে মুখের সৌন্দর্য অনেকটা ক্ষীন হয়ে যায়। নিয়মিত কলার খোসার ভেতরের অংশটি ঘষতে থাকলে এক সপ্তাহের মধ্যে অভাবনীয় ফলাফলটা দেখতে পাওয়া যায়। গ্যারান্টিসহ ব্রণ দূর করে কলার খোসা।

আরও পড়ুনঃ স্বপ্নদোষ থেকে মুক্তি পাওয়ার কয়েকটি সহজ উপায়

৬। কালো দাগ:- দেহের বিভিন্ন স্থানে কালো কালো দাগ হয়ে গেলে তা কলার খোসা দূর করতে পুরোপুরিভাবে সক্ষম। নিয়মিতভাবে ওই স্থানগুলিতে কলার খোসা ঘষে থাকলে ধীরে ধীরে কালো দাগ মুছে যায়। দরকার হলে ওই সকল জায়গাগুলিতে সারারাত কলার খোসা লাগিয়ে রেখে দিন।

৭। রিংকেল হ্রাস করতে:- ত্বকের ক্ষেত্রে কলার খোসা যথেষ্ট উপকারী। কারণের মধ্যে রয়েছে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং বিভিন্ন পুষ্টিকর উপাদান। নিয়মিত ত্বকের মধ্যে কলার খোসা ঘষতে থাকলে ধীরে ধীরে ত্বকের আদ্রর্তা দূর হয়ে মোলায়েম হয়ে ওঠে।

Continue Reading
Click to comment

Trending ..

To Top