Connect with us

Food

চুনো মাছ কয়েকটি কঠিন রোগকে সারিয়ে তুলতে সক্ষম

আমাদের দেশের মতো চুনো মাছ আর অন্য কোন দেশে তেমন দেখা যায় না যেমন – পুঁটি, ট্যাংরা, মলা, খোলসে, ছোট চিংড়ি ইত্যাদি কারণ আমাদের দেশে রয়েছে বেশিরভাগ খাল-বিল পুকুর ও জলাশয়। আর চিকিৎসকরা বলেছেন কোন মাছ খেলে বহু রোগের সমাধান হয় খুবই দ্রুতভাবে। তাহলে চলুন জেনে নেয়া যাক আজকের প্রতিবেদনে চুনো মাছ খেলে আপনি কি কি উপকার পাবেন –

Image

১) চুনো মাছের মধ্যে প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম থাকে। যেমন কুচো চিংড়ি, ছোট পুঁটি,চাঁদা ইত্যাদি ছোট মাছ গুলির মধ্যে পর্যাপ্ত পরিমাণে রয়েছে ক্যালসিয়ামসহ প্রোটিন এবং ভিটামিন এ। যা আমাদের হাড় মজবুত করে এবং গর্ভবতী মহিলার জন্য খুবই উপকারী। এমনকি এটি আমাদের দাঁতের ক্ষয় থেকে সুরক্ষা করে। তাই দাঁত এবং হাড় কে সুরক্ষা রাখতে চাইলে নিয়মিত চুনো মাছ খাওয়া উচিত।

২) ছোট ছোট বাচ্চাদের শরীরে আয়রন ,ক্যালসিয়াম এবং প্রোটিনের খুবই দরকার পড়ে যেগুলি এই চুনো মাছ থেকে পাওয়া সম্ভব। তাই নিয়মিত বাচ্চাদের চুনো মাছ খাওয়ান।

৩) চুনো মাছের মধ্যে অসম্পৃক্ত ফ্যাট রয়েছে, যা স্বাস্থ্যের পক্ষে খুবই উপকারী। এছাড়াও এটি মধ্যে রয়েছে বিভিন্ন ধরনের ভিটামিনসহ ফসফরাস আয়রন এবং প্রোটিন।

আরও পড়ুনঃ থাইরয়েড থেকে মুক্তি পাওয়ার উপায়

৪) চুনো মাছের মধ্যে রয়েছে পর্যাপ্ত পরিমাণে ভিটামিন এ যা রাতকানা রোগ দূর করতে সক্ষম। তাই দৈনিক এই জাতীয় মাছ খেলে এই সকল রোগ ধারে কাছে ঘেষতে পারে না।

Related image

৫) সকল ব্যক্তির মধ্যে হাই ব্লাড প্রেসারের সমস্যা রয়েছে তাদের চুনো মাছ খাওয়া উচিত। কারণ এটি মধ্যে উপস্থিত ক্যালসিয়াম উচ্চ রক্তচাপ কমাতে সাহায্য করে।

আরও পড়ুনঃ চুল ঝরে যাচ্ছে? জানুন কয়েকটি ঘরোয়া টোটকা

৬) যে সকল ব্যক্তিদের মধ্যে ডায়াবেটিসের সমস্যা রয়েছে তারা এই জাতীয় মাছ খেতে পারেন। এছাড়াও হৃদরোগ সংক্রান্ত ব্যক্তিদের জন্য কোন মাছ খুবই উপকারী।

সতর্কতাঃ চুনো মাছের মধ্যে পর্যাপ্ত পরিমাণে ফসফরাস থাকায় কিডনির পক্ষে ততটা ভালো নয়। যে সকল ব্যক্তিরা কিডনি সংক্রান্ত রোগে আক্রান্ত তাদের পক্ষে এই মাছ বেশি খাওয়া উচিত না। কারণ এর মধ্যে ইউরিক এসিডের পরিমাণ বেশি থাকে বলে বাতের রোগীদের পক্ষে ভালো না।

Continue Reading
Click to comment

Trending ..

To Top