Connect with us

জ্বর আসা মানেই কিন্তু করোনা নয়; কি কি লক্ষণ দেখে বুঝবেন?

Lifestyle

জ্বর আসা মানেই কিন্তু করোনা নয়; কি কি লক্ষণ দেখে বুঝবেন?

করোনা সংক্রমণের দ্বিতীয় ধাক্কায় গোটা দেশ এখন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। এই স্ট্রেন ভাইরাস খুব দ্রুত গতিতে ছড়িয়ে পড়ছে তাই আগের তুলনায় এখন সংক্রমণের হার কয়েকগুণ বেড়ে গেছে। এখন সাধারণ জ্বর এবং গায়ে ব্যাথার লক্ষণ থাকার কারণে অনেকে ভয় পাচ্ছেন করোনা ভেবে। এইক্ষেত্রে টেস্ট করিয়ে নেওয়া ভালো।

দেহে উচ্চ তাপমাত্রায় জ্বর আসা, ঘনঘন কফ, স্বাদ বা গন্ধ না পাওয়ার তাদের লক্ষণগুলি করোনার সাধারণ উপসর্গ। করোনার দ্বিতীয় পর্যায়ে এইসকল উপসর্গগুলি সাথে পেট খারাপও যুক্ত হয়েছে।

Fever in adults - red flag symptoms | GPonline

এবার জেনে নেওয়া যাক সাধারণ জ্বর ও করোনাভাইরাস এর মধ্যে পার্থক্যগুলি কোথায়?

১) অনেক সময় দেখা গেছে ১০০ ডিগ্রী সেলসিয়াসের গণ্ডি পার হচ্ছে না কিন্তু বারবার তাপমাত্রা বৃদ্ধি পাচ্ছে। এসব ক্ষেত্রে করোনাভাইরাস নাও হতে পারে তাই বারবার দেহের তাপমাত্রা মাপা উচিত। অন্য কোন কারণে এটি জ্বর আসতে পারে।

২) সাধারণত ঠান্ডা লেগে জ্বর আসা ও করোনার মধ্যে পার্থক্য রয়েছে। সাধারণ জ্বর হলে হঠাৎ করেই জ্বর হয়। সেইসাথে গায়ে হাত পায়ে ব্যথা, মাথা যন্ত্রণা, নাক দিয়ে জল পড়া এমনকি গলা ব্যথাও হতে পারে।

৩) সাধারণ জ্বর কয়েকদিনের মধ্যেই সেরে যায়। যদিও কিছুটা শরীরকে দুর্বল করে দেয়। সেইসাথে গলা ব্যাথা ও নাক দিয়ে পড়ার সমস্যা থাকে তবে খুব বেশি দেহে তাপমাত্রা হয়না।

It's Rare, but You Can Have Pneumonia Without a Fever

৪) করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হলে কফ খুব মারাত্মক হয়, যাদের ফুসফুসে আগে থেকেই সমস্যা রয়েছে। তাদের ক্ষেত্রে বুকে অনেকটাই চাপ অনুভূত হয়। যদি এমনটা হয়ে থাকে তাহলে সময় বিলম্ব না করে করোনা টেস্ট করিয়ে নিন।

৫) হাঁচি অথবা কাশি কিন্তু কোভিডের উপসর্গ নয়। তবে কফ, শরীরে উচ্চ তাপমাত্রা, স্বাদ গন্ধ চলে যাওয়া কিন্তু করোনা ভাইরাসের লক্ষণ। এই লক্ষণগুলি থাকলে অবশ্যই নিজেকে সকলের থেকে আলাদা করে নিন অর্থাৎ আইসোলেট করুন।

৬) সাধারণত জ্বরের ক্ষেত্রে নাক বন্ধ হয় না, তবে এটি করোনার অন্যতম লক্ষণ। অনেক সময় আবহাওয়া পরিবর্তনের ক্ষেত্রেও এই উপসর্গটি দেখা যায় ঠিকই কিন্তু ভয়ের কিছু নেই; তবে নিজেকে আইসোলেট রাখাই ভালো।

I wasn't able to hug my dad at my mum's funeral because of coronavirus' - Mirror Online

৭) করোনাভাইরাস এর উপসর্গ মৃদু থেকে গুরুতর হতে খুববেশি সময় লাগে না তাই এই ক্ষেত্রে চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া অত্যন্ত জরুরী।

৮) পাঁচদিন ধরে যদি আপনি করোনার উপসর্গগুলি পান তাহলে শীঘ্রই নিজেকে আইসোলেট করুন। তৎক্ষণাৎ করোনা টেস্ট করিয়ে নিন। যদি শ্বাসকষ্ট শুরু হয় তাহলে অবশ্যই চিকিৎসকের কাছে যান।

Continue Reading
Click to comment

Trending ..

To Top