অন্যান্য

রাতারাতি বদলে যাওয়া রানু মণ্ডল, বিতর্কিত মন্তব্য করে বসলেন

রানাঘাটের ভবঘুরে রানু মন্ডল জনপ্রিয়তার কথা প্রায় সকলেই জানেন। রাতারাতি সেলিব্রেটি হয়ে ওঠার গল্প শুধুমাত্র একজন ইঞ্জিনিয়ার ছাত্রের আপলোড করা ভাইরাল ভিডিওর মাধ্যমে হয়ে যায়। জানা গিয়েছে ছাত্রটির নাম অতীন্দ্র চক্রবর্তী, তার এই প্রয়াস ছাড়া কোন রকম রানু মন্ডল এর প্রতিভার খবর কেউ জানতো না। সেই জনপ্রিয়তা শুধুমাত্র এই বাংলাতেই থেমে থাকেনি পৌঁছেছে বলিউডের দোরগোড়া পর্যন্ত এমনকি ইতিমধ্যেই তিনি একটি হিমেশ রেশামিয়া সাথে গান রেকর্ডিং করেছেন।

রানু মন্ডলের প্রসঙ্গ এলেই সব সময় তার পিছনে থাকা মানুষটি কথা উঠে এসেছে অর্থাৎ অতীন্দ্র চক্রবর্তীর কথা। বলাবাহুল্য যে শুধুমাত্র এই ইঞ্জিনিয়ার ছাত্রের জন্যই আজ রানু মন্ডল বিখ্যাত একজন হতে পেরেছেন। তবে অনেকেই আছেন বিখ্যাত হয়ে যাওয়ার পরে তার পিছনে যার হাত ছিল সেই ব্যক্তির কৃতজ্ঞতা ভুলে যায়। এখানেও একই চিত্র দেখা গেল আর একটি ভিডিওর মাধ্যমে।

এক সংবাদ সাক্ষাৎকারে তাকে জিজ্ঞাসা করা হয়েছিল, সেই ইঞ্জিনিয়ার ছাত্রের অবদান কতখানি তাকে কিভাবে সেই জায়গায় পৌঁছে দিয়েছে। তিনি এর উত্তরে জানিয়েছেন ভগবানের ইচ্ছায় হয়েছে, ওরা ভগবানের চাকর। আমি ওদের সাহায্যে যাচ্ছিনা ভগবানের সাহায্য চলেছি। ওরাতো শুধুমাত্র ভগবানের চাকর।”

এর পরে তার মেয়ের প্রসঙ্গ এলে তিনি বলেন তার মেয়ে তাকে কতটা সেবা যত্ন করতো কারণ এই নিয়ে এর আগেও সকলে জানতে পেরেছিল তার দেখাশোনা করার কেউ নেই। কিন্তু এখানে দেখা গেল রানু দির মুখ দিয়ে অন্য গল্প। তিনি সরাসরি সংবাদমাধ্যমকে জানালেন তার মেয়ে তাকে প্রতি মাসে ৫০০ করে টাকা পাঠাতেন। এছাড়াও সাহায্যের জন্য প্রতি মাসে ৩০০ টাকা করে পেতেন। সকল প্রশ্নের জবাব দিতেই তিনি ক্যামেরার সামনে থেকে উঠে চলে যান প্রচন্ড রেগে গিয়ে।

দেখুন সেই বিতর্কিত ভিডিও :-

https://www.youtube.com/watch?v=svMiL5CYX7A

খবরটিও আগের মতই সত্যতা যাচাই না করেই প্রকাশিত করা হলো। তবে এই ভাইরাল হওয়া ভিডিও দেখে বোঝা গেল রানুদি তার বিখ্যাত হওয়ার পিছনে যে ব্যক্তিটির হাত ছিল তার কৃতজ্ঞতাকে অস্বীকার করলেন। এটা কি ঠিক করলেন?

error: Content is protected !!