Connect with us

ক্রিকেট

বিখ্যাত ৫ ভাইয়ের জুটি যারা ভারতীয় দলের হয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলেছেন

প্রতিটি তরুণ ক্রিকেটার তার শৈশবের দিন থেকেই জাতীয় দলের হয়ে খেলার স্বপ্ন দেখতে শুরু করে। তবে খুব কম জনেরই এই স্বপ্ন পূরণ হয়। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে একজন খেলোয়াড়ের অভিষেক হলে তার পরিবারের সমস্ত সদস্যরা খুশি হন, তবে ক্রিকেটের এই খেলায় এখনো পর্যন্ত অনেকবার দেখা গেছে যে, একই পরিবারের দুই ভাই যারা জাতীয় দলে খেলার সুযোগ পেয়েছেন। তেমনি পাঁচ ভারতীয় ভাইয়ের সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক:

৫) হার্দিক পান্ডিয়া ও ক্রুনাল পান্ডিয়া:

২০১৫ সালে আইপিএলে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের হয়ে পান্ডিয়া ভাইয়েরা তাদের ক্রিকেট ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন। এর পরের বছরই হার্দিক পান্ডিয়া অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে টি-টোয়েন্টি ম্যাচে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক করেন। সম্প্রতি তার অসাধারণ পারফরম্যান্সের কারণে তিনি রোহিত শর্মার অনুপস্থিতিতে ভারতীয় দলের অধিনায়ক হয়েছেন। এদিকে বড় ভাই ক্রুনাল পান্ডিয়ার আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয়েছিল ২০১৮ সালে। তবে তিনি ধারাবাহিকতার অভাবে জাতীয় দল থেকে বাদ পড়েছেন।

৪) ইরফান পাঠান ও ইউসুফ পাঠান: 

ভারতীয় দলের হয়ে খেলার সুযোগ পেয়েছিলেন পাঠান ভাইয়েরা। ইরফান পাঠান ২০০৬ সালে পাকিস্তানের বিপক্ষে একটি টেস্টে প্রথম ওভারেই হ্যাটট্রিক করে ইতিহাস সৃষ্টি করেন। এছাড়া ২০০৭ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনালে দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের কারণে ম্যান অব দ্য ম্যাচ নির্বাচিত হয়েছিলেন। তবে ইউসুফ পাঠানের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার তার ছোট ভাইয়ের মতো সফল হয়নি। তবে এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান ভারতের হয়ে কয়েকটি বিধ্বংসী ইনিংস খেলেছিলেন।  

৩) মহিন্দর ও সুরিন্দর অমরনাথ:

মহিন্দর অমরনাথ ১৯৮৩ বিশ্বকাপে ভারতকে জিততে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন। তিনি এই বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল ও ফাইনালে ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ নির্বাচিত হন। এই ডানহাতি অলরাউন্ডার প্রায় দুই দশক ধরে ভারতের জাতীয় দলের হয়ে খেলেছেন। এদিকে তার ভাই সুরিন্দর অমরনাথের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার দীর্ঘ হয়নি। তিনি নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে অভিষেক টেস্টে ১২৪ রানের একটি সুন্দর ইনিংস খেলেছিলেন।

২) মাধব ও অরবিন্দ আপটে:

ডানহাতি ব্যাটসম্যান মাধব আপটে পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রথম টেস্ট খেলেছিলেন ১৯৫২ সালে। এরপর যখন ভারত ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর করে তিনি পাঁচ ম্যাচের সিরিজে ৫১ গড়ে ৪৬০ রান করেছিলেন এবং এই সিরিজের তৃতীয় সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ছিলেন। যাইহোক এমন পারফরম্যান্স করা সত্বেও তার ক্যারিয়ার স্বল্পস্থায়ী হয়েছিল। এদিকে ওপেনার অরবিন্দ আপটে ভারতের হয়ে মাত্র একটি টেস্ট ম্যাচ খেলেছেন, যেখানে দুই ইনিংস মিলিয়ে মাত্র ১৫ রান করেন।

১) সুভাষ ও বালু গুপ্তে:

লেগ স্পিনার সুভাষ গুপ্তে ১৯৫১ সালে ইডেন গার্ডেনে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে তার অভিষেক টেস্ট খেলেছিলেন। তিনি তার দশ বছরের ক্যারিয়ারে ৩৬ ম্যাচে ১৪৯ উইকেট নেন। তার সেরা পারফরম্যান্স ছিল ১০২ রানে ৯ উইকেট নেওয়া। তার ভাই বালু গুপ্তেও লেগ স্পিনার ছিলেন, যিনি ঘরোয়া ক্রিকেটে ৪০০-র বেশি উইকেট নিয়েছিলেন। ১৯৬১ সালে বালু গুপ্তে পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রথম টেস্ট খেলেছিলেন এবং তার ক্যারিয়ার মাত্র চার বছর স্থায়ী হয়েছিল।

Continue Reading
To Top