Connect with us

শরীরে এই দুটি রোগ থাকলেই করোনা-তে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বেশি

Lifestyle

শরীরে এই দুটি রোগ থাকলেই করোনা-তে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বেশি

আজ সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছে করোনা ভাইরাসের আতঙ্ক। সারাবিশ্বে লক্ষাধিক মানুষ আক্রান্ত হয়েছে এবং কয়েক হাজার মানুষ মারাও গিয়েছে। এখনো পর্যন্ত কোনো গবেষক বা বিজ্ঞানীরা এই রোগের প্রতিষেধক আবিষ্কার করতে পারেনি। যে কারনে বন্ধ হয়ে গেছে দেশের স্কুল-কলেজ অফিস-আদালত এবং ক্রীড়া ইভেন্টগুলি।

এক বিশেষজ্ঞ জানিয়েছেন, এই ভাইরাসটি অত্যন্ত ছোঁয়াচে বলে মানুষ আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন। যে সকল মানুষের বয়স পঞ্চাশের উর্ধ্বে তাদেরই রয়েছে করোনা ভাইরাসে মৃত্যুঝুঁকি। যে সকল ব্যক্তিদের শরীরে ডায়াবেটিস এবং উচ্চ রক্তচাপের সমস্যা রয়েছে, তারা আছেন সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিতে।

Image result for coronavirus

এছাড়াও কোন রোগীর যদি বয়স ৬৫ বছরের বেশি হয় এবং তিনি যদি ধূমপান করেন তাহলে এই ধরনের সংক্রমণ তার শরীরে খুব সহজেই সংক্রমণ হতে পারে আর মৃত্যুঝুঁকির সম্ভাবনা থাকে প্রবল।

সম্প্রতি ‘ল্যানসেট’ নামক এক মেডিকেল জার্নালে প্রকাশিত একটি গবেষণাপত্রে জানা গেছে, ৬৯ উত্তীর্ণ পুরুষ যারা ধূমপায়ী এবং অনিয়ন্ত্রিত ডায়াবেটিস ও উচ্চ রক্তচাপের রোগী, তাদের নভেল করোনাভাইরাসের সংক্রমণে ও মৃত্যুহার সব থেকে বেশি।

আরও পড়ুনঃ করোনা ভাইরাস থেকে রক্ষা পেতে এই কাজগুলো ভুলেও করবেন না

এই মারাত্মক ভাইরাস টি অত্যন্ত ছোঁয়াচে বলে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে হাঁচি কাশি এবং সর্দি বাতাসের মধ্যে। এই রোগে আক্রান্ত হওয়া কোনো ব্যক্তির আশেপাশে থাকলে সুস্থ মানুষেরও আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।

Image result for cold and cough

কোভিড-১৯ ভাইরাসটি প্রথমে শ্বাসনালীতে ক্ষতিগ্রস্ত করে এরপর ধীরে ধীরে ফুসফুস এবং ক্ষুদ্রান্তকেও অ্যাটাক করে। এরপর একে একে শরীরের অন্যান্য অঙ্গ-প্রত্যঙ্গগুলির কাজ করার ক্ষমতাও বন্ধ করে দেয়।

আরও পড়ুনঃ করোনা ভাইরাস থেকে বাঁচতে বিশ্ব সংস্থা জারি করেছে ৮টি সতর্কবার্তা

যেহেতু এখনো করোনার কোনরকম প্রতিষেধক বা টিকা আবিষ্কার হয়নি তাই সব সময় সাবান দিয়ে হাত ধোয়া, মুখে রুমাল চাপা দিয়ে হাঁচি-কাশি এবং বাইরে থেকে ঘরে ফিরে পোশাক বদলে দ্রুত পরিষ্কার হওয়া জরুরি।

জানিয়ে রাখি, সারা বিশ্বে এই মহামারীতে আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় দেড় লক্ষের বেশি মানুষ। চীনের উহান প্রদেশ থেকে ছড়িয়ে পড়ে এই মারাত্মক ভাইরাসে সারাবিশ্বে মৃতের সংখ্যা গিয়ে দাঁড়িয়েছে ৫ হাজার ৮৪০ জন। তবে এখন পর্যন্ত ৭৬ হাজার মানুষ চিকিৎসা করে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

আরও পড়ুনঃ করোনা ভাইরাস নিয়ে মানুষের মধ্যে যেসব ভুল ধারণাগুলি তৈরি হয়েছে

Continue Reading
Click to comment

Trending ..

To Top