ক্রিকেট

৯০-র ঘরে সবচেয়ে বেশি সেঞ্চুরি হাতছাড়া করেছেন এই ৫ ব্যাটসম্যান; তালিকায় দুই ভারতীয়

সেঞ্চুরির মুখে এসে প্যাভিলিয়নে ফিরে যাওয়া একজন ব্যাটসম্যানের পক্ষে সবচেয়ে বড় দুর্ভাগ্যজনক। এইসময় খেলোয়াড়রা কমবেশি ‘নার্ভাস নাইন্টিস’র সমস্যায় পড়েন। কিছু কিছু ব্যাটসম্যান রয়েছেন যারা এই সময়ে অত্যধিক চাপ সহ্য করতে না পেরে সহজেই উইকেট হারিয়ে সেঞ্চুরি মিস করেছেন। এই প্রতিবেদনে এমন ৫ ব্যাটসম্যানের কথা বলা হয়েছে যারা আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ৯০-র ঘরে সবচেয়ে বেশি সেঞ্চুরি হাতছাড়া করেছেন।

৫) ম্যাথু হেডেন: ১১ বার

অস্ট্রেলিয়ার প্রাক্তন বিধ্বংসী বাঁহাতি ওপেনার ম্যাথু হেডেন তার ক্রিকেট ক্যারিয়ারে মোট ১১ বার ৯০-র ঘরে আউট হয়েছেন। যখনই তিনি সেঞ্চুরির দোরগোড়ায় পৌঁছেছেন বেশিরভাগ সময়ই হেলমেট খুলে ফেলতেন আর মাঝেমধ্যেই পানীয় খেতেন। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে হেডেন মোট ৪০টি সেঞ্চুরি করেছেন, যার মধ্যে ১১ বার সেঞ্চুরি মিস করেছেন।

৪) রিকি পন্টিং: ১১ বার

বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক রিকি পন্টিং তার সময়ে গোটা ক্রিকেট বিশ্বে রাজত্ব করেছিলেন। তার নেতৃত্বে অস্ট্রেলিয়া দলকে হারানো খুবই কঠিন ছিল। দলগত পারফর্ম নিয়ে তার বিন্দুমাত্র চাপ না থাকলেও তিনি বারবার ‘নার্ভাস নাইনটিজ’-র শিকার হয়েছেন। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তার মোট ৭১টি সেঞ্চুরি রয়েছে যেখানে ১১ বার ৯০-র ঘরে আউট হয়েছেন।

৩) রাহুল দ্রাবিড়: ১২ বার

বিশ্বের সবচেয়ে ডিফেন্সিভ ব্যাটসম্যান রাহুল দ্রাবিড়ও ‘নার্ভাস নাইনটিজ’-র শিকার হয়েছেন। যে সময়ে তিনি ৯০-র ঘরে ব্যাটিং করতেন তার সারা শরীর ঘামে ভিজে যেত এবং একটু ভালো করে লক্ষ্য করলে বোঝা যেত তিনি যথেষ্ট চাপে রয়েছেন। আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে তার মোট ৪৮টি সেঞ্চুরি রয়েছে যার মধ্যে ১২ বার ৯০-র ঘরে আউট হয়েছেন।

২) এবি ডি ভিলিয়ার্স: ১২ বার

দক্ষিণ আফ্রিকার কিংবদন্তি এবি ডি ভিলিয়ার্স, বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় ক্রিকেটারদের মধ্যে একজন। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় জানানোর পরেও আইপিএলে যেভাবে পারফর্ম করেছেন তিনি দেশের হয়ে অনায়াসে আরো ২-৩ বছর খেলা চালিয়ে যেতে পারতেন। এই বিখ্যাত ব্যাটসম্যান কোন পরিস্থিতিতেই বিচলিত হতেন না যদিও নব্বইয়ের ঘরে এসে ১২ বার আউট হয়ে সেঞ্চুরি মিস করেছেন।

১) শচীন টেন্ডুলকার: ২৭ বার

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে শচীন টেন্ডুলকারের মোট ১০০টি সেঞ্চুরি রয়েছে। তিনি যদি নব্বইয়ের ঘরে অতিরিক্ত নার্ভাস হয়ে না পড়তেন তার ক্যারিয়ারে আরো ২৭টি সেঞ্চুরি দেখা যেত। পরিসংখ্যানের কথা বলে শচীন টেন্ডুলকার টেস্ট ১০ বার, ওয়ানডেতে ১৭ বার মোট ২৭ বার ‘নার্ভাস নাইনটিজ’-র শিকার হয়েছেন। এর মধ্যে কয়েক বার আম্পায়ারের ভুল সিদ্ধান্তের কারণেও তিনি ক্রিজ ছেড়েছেন।

error: Content is protected !!